[gtranslate]

সৎ-নিষ্ঠবান ও চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা ওসি নাজিম উদ্দিন ও এসআই সজীব দেব।


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৯, ২০২৩, ৪:০৫ অপরাহ্ণ / ৮৪৮
সৎ-নিষ্ঠবান ও চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা ওসি নাজিম উদ্দিন ও এসআই সজীব দেব।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি॥ বাংলাদেশে একটি মাত্র পেশা, যে পেশার মানুষ ঘুম থেকে ওঠে মানুষের কথা ভাবে। আবার ঘুমোতে যাবার আগেও ধ্যানজ্ঞানে থাকে শুধুই মানুষ-সে পেশাটি হলো ‘’বাংলাদেশ পুলিশ’’। নিজের বাবা-মা, ভাই-বোন, স্ত্রী-সন্তানদের কথা ভাবার আগে যে পেশার মানুষ শুধুই মানুষের কথা ভাবে, মানুষের নিরাপত্তার কথা ভাবে তারাই পুলিশ। কিন্তু সে আমরাই ঘুম থেকে ওঠে একবার পুলিশকে মন্দ বলি,গালি দিই। আবার ঘুমোতে যাওয়ার আগেও দেই। তবুও সে পুলিশই অন্ধকারে নিরাপত্তার ঢাল হয়ে দাঁড়ায় মানুষের পাশে। পুলিশ জনতা, জনতাই পুলিশ। এই স্লোগানকে সামনে রেখে বর্তমান বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর অর্জনের পাল্লা এখন সুনামের খাতায় প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছে। একজন নেতা যেমন কর্মীদের অনুপ্রেরণা দিয়ে নেতৃত্ব প্রদান করে সংগঠনকে এগিয়ে নিয়ে যায়, একজন কোচ যেভাবে কনফিডেন্স লেভেল তৈরি করে শিষ্যের কাছ থেকে সেরাটুকু বের করে নিয়ে আসেন। ঠিক একই ভাবে অফিসার’দের কনফিডেন্স লেভেল তৈরি করে কাজ করিয়ে নেন। শত বিপদে, প্রতিকূলতার মধ্যে তারা বট গাছের ন্যায় আগলে রাখেন অধীনস্থ পুলিশ কর্মকর্তা সদস্যদের। তারা আর কেউ নন, তারা হচ্ছেন বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর গর্ব কিংবদন্তী সুনামগঞ্জে তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন ও ট্যাকেরঘাট অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের চৌকস ইনচার্জ এসআই সজীব দেব রায়। তাহিরপুর পুলিশে পরিবর্তনের হাওয়া, কাজের গতিশীলতা, সফলতা সবকিছুর পেছনে তাদের অংশগ্রহণ।নাগরিক সেবা ও জন-নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রতিনিয়ত তাদের নির্দেশে বিভিন্ন পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে অধিনস্ত পুলিশ সদস্যরা। দুই জন মানবিক অফিসার, নিষ্ঠাবান অফিসার ও অসাধারণ ভালো মানুষ এই পুলিশ কর্মকর্তারা মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন ও এস আই সজীব দেব রায় সফলভাবে অসংখ্য কাজ সম্পাদন করে তারা।“পুলিশ জনতার, জনতা পুলিশের” এই স্লোগানকে বাস্তবে রূপ দিয়েছেন ওসি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন ও এস আই সজীব দেব রায়) তারা বাংলাদেশের মানুষের চোখে সৎ, আদর্শবান, ন্যায়নিষ্ঠ ও গরিবের বন্ধুসুলভ পুলিশ অফিসার। অধিকাংশ মানুষই তাদের’কে গরিবের বন্ধু হিসাবে জানেন।তারা সততা, ন্যায়নিষ্ঠা ও বিচক্ষণ বুদ্ধিমত্তা দিয়ে তারা দায়িত্বরত তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন এর সহযোগিতায় অত্র এলাকা, জুয়া, মাদক, কালোবাজারি, ও চোর ডাকাত এর হাত থেকে মুক্ত করেছেন। তাদের চোখে ধনী-গরিব, রিক্সাচালক হতে সব শ্রেণিপেশার মানুষ সমান। তারা শুধু পুলিশ কর্মকর্তাই নন পাশাপাশি অনেক সামাজিক কর্মকান্ডে তাদের অবদান রেখেছেন। তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন ও ট্যাকেরঘাট অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের চৌকস ইনচার্জ এসআই সজীব দেব রায়’র মুখের ভাষা বর্তমান সরকার গণমানুষের বন্ধু, সরকার আমাদের পাঠিয়েছেন মানুষের মুখেহাসি ফোটাতে, মানুষের সাথে মিলেমিশে তাদের সুখ দুঃখ ভাগাভাগি করে নিতে।তারা বলেন আমরা মানুষের অতন্ত্র প্রহরী। আমাদের কাজ হচ্ছে দেশকে দখল, চাঁদাবাজি,মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, চাদাঁবাজ, ইভটিজার মুক্ত করে মানুষের মাঝে শান্তি ফিরিয়ে আনা। আপনারা পুলিশকে নিজের বন্ধু ভাবুন, পুলিশ জনগণের বন্ধু। পুলিশ জনগণের শুধু বন্ধুই নয়, সেবকও। আমরা পুলিশ সব সময়ই জনগণের বন্ধু হিসেবে জনগণের পাশে ছিলাম এবং আগামীতেও থাকবো ইনশাআল্লাহ।অনুসন্ধানে জানাযায় ট্যাকেরঘাট অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের চৌকস ইনচার্জ এসআই সজীব দেব রায় গত এক মাসের সফলতা সম্পর্কে বিস্তারিত গত পহেলা অক্টোবর জোগদানের পর থেকে গত (৫ অক্টোবর ২০২৩) রাতে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্ত এলাকায় দু শতাধিক পিস ইয়াবাসহ মোহাম্মদ হোসেন (৩৭)নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়ন কড়ইগড়া থেকে আটক করা হয়।,( ৬ অক্টোবর ২০২৩) তাহিরপুরে ২২৫ পিস ইয়াবাসহ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে তাহিরপুর থানা পুলিশ। (০৮ অক্টোবর ২০২৩) পালিয়ে থাকার পরও শেষ রক্ষা হলো না ওয়ারেন্টভুক্ত দুই আসামির। অবশেষে তাহিরপুর উপজেলার ট্যাকেরঘাট অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সজীব দেব রায় এর নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস দল তাদেরকে ধরতে সক্ষম হয়।(১০ অক্টোবর ২০২৩) সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার টাঙ্গুয়ার হাওরে ভ্রমণে আসা পর্যটকদের চুরি হওয়া চারটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছে পুলিশ। এরমধ্যে ২টি আইফোন রয়েছে।তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজিম উদ্দিন এর নির্দেশনায় ট্যাকেরঘাট অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের চৌকস ইনচার্জ এসআই সজীব দেব রায় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে চুরি যাওয়া মোবাইলসহ রানা আহমদ (২২) নামে ব্যক্তিকে আটক করেন।শনিবার (১৪ অক্টোবর ২০২৩) সন্ধ্যায় মাদক বিক্রয়কালে তাহিরপুর থানা পুলিশের চৌকস কর্মকর্তা এস আই সজীব দেব রায় এর হাতে ধরা পড়ে দুই মাদক কারবারি।এসময় তাদের বহনকৃত বিভিন্ন ব্রান্ডের ভারতীয় ২০ বোতল মদ জব্দ করা হয়। এবং ১৪ অক্টোবর শনিবার বিকেলে শ্রীপুর বাজারে অভিযান চালায় তাহিরপুর থানা পুলিশ। তাহিরপুর থানাধীন ট্যাকেরঘাট অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের চৌকস ইনচার্জ এসআই সজীব দেব রায় এ অভিযান পরিচালনা করেন।এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে চৌকস এসআই সজীব দেব রায় জানান, সর্বগ্রাসী জুয়া-মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড নির্মূলে বন্ধে মাননীয় পুলিশ সুপার ও মাননীয় ওসি মহোদয়ের নির্দেশে মানুষের জানমালে নিরাপত্তাদানে দায়িত্ব পালনের পর থেকেই সচেষ্ট রয়েছি। এরই ধারাবাহিকতায় আজ শ্রীপুর বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

দৈনিক প্রচেষ্টা নিউজ/ সুনামগঞ্জ