[gtranslate]

সুনামগঞ্জ জেলা পাশের হার সর্বোচ্চ, ৯৭.২৯ শতাংশ।


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৩১, ২০২১, ২:০১ অপরাহ্ণ / ৮৭
সুনামগঞ্জ জেলা পাশের হার সর্বোচ্চ, ৯৭.২৯ শতাংশ।

 

 

সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জ জেলায় গতবারের চেয়ে এবার বেড়েছে পাশের হার ও জিপিএ-৫। সিলেট বোর্ডের মধ্যে এ বছর সুনামগঞ্জ জেলায় পাশের হার সর্বোচ্চ, ৯৭.২৯ শতাংশ। গত বার যা ছিল ৭৮.৩৩ শতাংশ। পাশের হার বেড়েছে ১৮.৯৬ শতাংশ।

এদিকে সুনামগঞ্জ জেলায় এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬২৭ জন শিক্ষার্থী। গতবার সুনামগঞ্জ জেলায় জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৪১৩ জন শিক্ষার্থী। এবার জিপিএ-৫ বেশি পেয়েছে ২১৪ জন শিক্ষার্থী।

পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের সকল সূচকই ঊর্ধ্বমুখী। পরীক্ষার্থীর সংখ্যা, সর্বোচ্চ ফল প্রাপ্তির সংখ্যা, পাসের হার, শতভাগ পাসের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা- সবই বেড়েছে।

সিলেট শিক্ষা বোর্ড থেকে প্রাপ্ত ফলাফল বিশ্লেষণ করে জানা যায়, এবার সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সুনামগঞ্জ জেলায় ২৬ হাজার ৪৯ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২৫ হাজার ৩৪৩ জন। জেলার ২২৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ৩৪টি কেন্দ্রে পরীক্ষা দেয়।

প্রসঙ্গত, প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হলেও করোনার কারণে প্রায় দেড় বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এবার যথাসময়ে পরীক্ষা গ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। নয় মাস পিছিয়ে এবার পরীক্ষা শুরু হয় ১৪ নভেম্বর। আক্রান্তের হার সহনীয় মাত্রায় উন্নীত হওয়ায় পুনর্বিন্যাসকৃত সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষার সময় ছিল দেড় ঘন্টা। বাংলা, ইংরেজির মত আবশ্যিক বিষয়গুলোতে এবার পরীক্ষা না নিয়ে আগের পাবলিক পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হয়।

ফল পুনর্নিরীক্ষার আবেদন ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত : পরীক্ষায় যারা কাঙ্ক্ষিত ফল পায়নি, তারা আজ ৩১ ডিসেসম্বর থেকে ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত ফল পুনর্নিরীক্ষার আবেদন করতে পারবে। আবেদন করতে টেলিটকের প্রিপেইড মোবাইল ফোন থেকে মেসেজ অপশনে গিয়ে RSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে আবেদন বাবদ কত টাকা কেটে নেওয়া হবে তা জানিয়ে পিন নম্বর দেওয়া হবে। পরে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

পুনর্নিরীক্ষার ক্ষেত্রে একই এসএমএসের মাধ্যমে একাধিক বিষয়ের (যেসব বিষয়ের পরীক্ষা হয়েছে) জন্য আবেদন করা যাবে। সেক্ষেত্রে ‘কমা’ দিয়ে বিষয় কোডগুলো পর্যায়ক্রমে লিখতে হবে। প্রতি বিষয়ের জন্য ১২৫ টাকা করে ফি দিতে হবে।