[gtranslate]

সুনামগঞ্জ জনপ্রিয় তরুণ রাজনীতিবীদ মোঃ সেলিম আহমদ  


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ২৮, ২০২৩, ২:৩৬ অপরাহ্ণ / ২১
সুনামগঞ্জ জনপ্রিয় তরুণ রাজনীতিবীদ মোঃ সেলিম আহমদ  

স্টাফ রিপোর্টার::

সুনামগঞ্জ জেলা জনপ্রিয় তরুণ রাজনীতিবীদ মোঃ সেলিম আহমদ অসাধারণ ব্যক্তিত্বসম্পূর্ণ, সৎ চরিত্রের অধিকারী একজন জনপ্রিয় শ্রমিকলীগ নেতা। তিনি বর্তমানে জাতীয় শ্রমিকলীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। দক্ষ রাজনীতিবিদ, জনপ্রিয় নেতা, সৎ, চরিত্রবান এবং আদর্শ মানুষ হিসেবে একজন মানুষের যেসব গুণাবলী থাকা প্রয়োজন তার সব গুণাবলী মোঃ সেলিম আহমদ ভাইয়ের মধ্যে রয়েছে তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক নির্বাহী সদস্য ছিলেন। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুনামগঞ্জ ১ আসন থেকে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ সেলিম আহমদ। সরকার দলীয় এতো কাছে থেকেও তিনি কখনো ক্ষমতার অপব্যবহার করেননি। তার ব্যবহারে কখনো অহংকারী ভাব প্রকাশ পায়নি। বরং তিনি উদার, নিরহংকার, অমায়িক এবং মিষ্টভাষী হিসেবে পরিচিত। যে মানুষ তার সান্নিধ্যে একবার গিয়েছে, সেই মানুষটি কোন না কোনোভাবে মুগ্ধ হয়েছেন, যা তাকে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তার শীর্ষে নিয়ে গেছেন। বর্তমানে শুধু সুনামগঞ্জ নয় মোঃ সেলিম আহমদকে চেনেন না এমন মানুষ সুনামগঞ্জে খুব কম আছেন। শত ব্যস্ততার মাঝেও তিনি সাধারণ মানুষের কথা শোনেন। তাদের বিপদে আপদে তিনি তাদের সাহায্য করেন। শুধু সুনামগঞ্জ নয় তাঁর নির্বাচনী এলাকা সুনামগঞ্জ ১ সংসদীয় এলাকার মানুষ আসেন তার কাছে। এমন কোন মানুষ পাওয়া যাবে না যে, তার কাছে এসে সাহায্য না পেয়ে ফিরে গেছেন। মেয়ের বিয়ে-টাকার প্রয়োজন, সন্তান বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হবে- টাকার প্রয়োজন, বড় আপারেশন- টাকার প্রয়োজন, চিকিৎসার ব্যয়- টাকার প্রয়োজন, সব ভরসার আশ্রয়স্থল মোঃ সেলিম আহমদ। এছাড়া অনেক মানুষ আসেন তাদের জীবিকা নির্বাহের জন্য অন্তত কিছু একটা অবলম্বন পাওয়ার আশায়। তিনি সাধ্যমত তাদের জীবন চলার মত ব্যবস্থা করে দেন। যেমন- কাউকে রিকশা, কাউকে ইজিবাইক আবার কাউকে মুদি দোকান করার মতো সহায়তা করে থাকেন। অনুসারী, ভক্ত এবং সহকর্মীদের কাছে তাঁর জীবন এবং কর্ম প্রেরণার। তিনি সবার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেন। শত ব্যস্ততার মধ্যেও কারও সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন এমন নজির নেই, যা একজন রাজনীতিবিদের অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট্য। তিনি বুদ্ধিমান, মেধাবী এবং অমায়িক হিসেবে পরিচিত। আচরণে তিনি যেমন শিষ্ট, তেমনি বিচক্ষণতায় তীক্ষ্ণ। ঠিক তেমনি দুর্বলের তিনি যেমন বন্ধু, আবার অন্যায়-অত্যাচারকারীদের বিরুদ্ধে তিনি কঠোর। তিনি নিজের ক্ষতি করতে পারেন, কিন্তু অন্যের ক্ষতি তার দ্বারা অসম্ভব। করোনা কালীন, ভয়াবহ বন্যা ও শীতার্ত মানুষের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার সাথে সাথে তিনি সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকায় নেতা-কর্মীদের মাধ্যমে অসহায়, অসচ্ছল এবং হঠাৎ কর্মহীন হওয়া পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন। খাদ্য সহায়তার মধ্যে ছিল- পাঁচ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, দুই কেজি আলু, এক কেজি পেঁয়াজ, এক কেজি লবণ, এক লিটার তেল, একটি সাবান এবং একটি সচেতনতামূলক লিফলেট। তিনি প্রায় ৩৫ হাজার পরিবারের মাঝে এ খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন। এছাড়াও সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা স্বপ্নের ঠিকানা নারী কল্যাণ সমিতির মেয়েদের বেকারত্ব দূরীকরণে সেলাই মেশিন সহ নগদ অর্থ প্রদান করেন। মোঃ সেলিম আহমদ বলেন- ‘বঙ্গবন্ধুর কন্যা স্মার্ট বাংলাদেশের রুপকার শেখ হাসিনা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অবশ্যই আমাকে মূল্যায়ন করবেন। আমি শুধু আমার নির্বাচনী এলাকা নয় জেলার অসহায় মানুষের পাশে থেকে মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরও বলেন- ‘যেকোন দুর্যোগকালীন সময় সুনামগঞ্জবাসীর জন্য মানবিক সহায়তা অব্যাহত থাকবে।’ মোঃ সেলিম আহমদ রাত-দিন সুনামগঞ্জের মানুষের জন্য আত্ম-মর্যাদা, সুযোগ-সুবিধা, জীবন-যাত্রার মানোন্নয়ন, শান্তি এবং সুশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টির করার লক্ষ্যে কঠোর পরিশ্রম করে চলেছেন। জাতি-ধর্ম-বর্ণ-গোষ্ঠী নির্বিশেষে সবার প্রতি সমান গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি। যেন একটি স্বপ্নময় ভাতৃ-প্রতিম ও সম্প্রতিময় জেলা গড়ে তুলতে পারেন। সব গোষ্ঠীর লোকজন যেন শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করতে পারেন। সুনামগঞ্জের মানুষ সত্যিই সৌভাগ্যবান মোঃ সেলিম আহমদ ভাইয়ের মতো আদর্শবান একজন নেতা পেয়েছেন, যে ভবিষ্যতে সুনামগঞ্জের মানুষের কর্ণধর হয়ে সকল মানুষের আশা-আকাঙক্ষা পূরণ করবে।