[gtranslate]

সাতক্ষীরায় হাসপাতালে আনার পর মারা গেলেন হাজতি, পরিবারের দাবি অস্বাভাবিক মৃত্যু 


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : মার্চ ২৫, ২০২৩, ৬:৫২ অপরাহ্ণ / ২১
সাতক্ষীরায় হাসপাতালে আনার পর মারা গেলেন হাজতি, পরিবারের দাবি অস্বাভাবিক মৃত্যু 

সাংবাদিক জয়, 

সাতক্ষীরা জেলা কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়া হাজতিকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়েছে। মৃত ওই হাজতির নাম মনিরুল ইসলাম(৪৫)। তিনি সদর উপজেলার আখড়াখোলা এলাকার ভাটপাড়া গ্রামের মৃত রইচ উদ্দিনের ছেলে। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে একটি মাদক মামলায় তিনি কারাগারে বন্দী ছিলেন (হাজতী নং ৮৫৭/২) । শুক্রবার (২৪ মার্চ) দিনগত রাত ১০টায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাবার পথে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন সাতক্ষীরা কারাগারের জেলার মোঃ মামুনুর রশীদ। তিনি আরও জানান, বেশ কয়েকদিন যাবত কারা হাসপাতালে অসুস্থ অবস্থায় ভর্তি ছিলেন মনিরুল ইসলাম।  অন্যদিকে মৃত মনিরুল ইসলামের স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন দাবি করেছেন, সম্পূর্ন সুস্থ ছিলেন মনিরুল। গতকাল শুক্রবার (২৪ মার্চ) বিকাল ৩টায় তিনি বাড়িতে ফোন করেছিলেন। এসময় তিনি কোন শারিরীক অসুস্থতার কথা জানাননি। শনিবার (২৫ মার্চ) সকাল ১০টায় জেলগেটে দেখা করতে গেলে তার স্বামীর মৃত্যুর খবর পান তিনি। আক্ষেপ করে মনোয়ারা খাতুন বলেন, গতকাল শুক্রবার রাতে তার স্বামী মারা গেলেও কারা কর্তৃপক্ষ তাদেরকে সে খবর দেয়নি। আজ সকালে কারাগারে কিছুক্ষন অপেক্ষা করার পর জানতে পারেন তার স্বামীর মরদেহ সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে রয়েছে। তিনি এটিকে অস্বাভাবিক মৃত্যু বলে দাবি করেছেন। এদিকে সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ মমতাজ মজিদ জানিয়েছেন, শুক্রবার রাতে ওই আসামীকে আনার সময় তিনি অচেতন ছিলেন। কিছুসময় পরই তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।  অন্যদিকে সাতক্ষীরা কারাগারের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক ডাঃ আসাদুজ্জামান পলাশের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।  মরদেহটির সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুতকারী সাতক্ষীরা সদর থানার উপপরিদর্শক তন্ময় কুমার বসু জানান, লাশটিতে কোন আঘাতের চিহ্ণ নেই। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে তদন্ত করা হবে।  সাতক্ষীরা সদর থানার কর্মকর্তা(ওসি) আবু জিহাদ মোঃ ফখরুল আলম খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। মোঃ আঃ রহিম জয় , সাংবাদিক মানবাধিকার কর্মী, ০১৭৫৯৬০৭৩৭৯