[gtranslate]

শ্রীশ্রী রামনবমী দিন প্রথমবার মা বীণাপাণি ওঁ শান্তি পতাকা উত্তোলন করা হয়।


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : মার্চ ৩১, ২০২৩, ৪:৫১ অপরাহ্ণ / ২১
শ্রীশ্রী রামনবমী দিন প্রথমবার মা বীণাপাণি ওঁ শান্তি পতাকা উত্তোলন করা হয়।

বিশেষ প্রতিনিধি৷৷ 

গত ১৫ই চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৩০শে মার্চ বৃহস্পতিবার শ্রীশ্রী রামনবমী দিন মর্যাদা পুরুষোত্তম ভগবান শ্রী রামচন্দ্রের আবির্ভাব তিথি পালন করেন মা বীণাপাণি অমৃত সংঘ। এই সুন্দর তিথিতে আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেন এই সেবামূলক সংগঠনটি, শ্রী রামচন্দ্রের পুজো সমাপন করে অসংখ্য দর্শনার্থী ও ভক্তদের নিয়ে প্রথমবার মা বীণাপাণি অমৃত সংঘ নিজস্ব ওঁ শান্তি পতাকা উত্তোলন করেন সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক শ্রী পল্লব বিশ্বাস এবং তারই সাথে বাংলাদেশের গৌরবময় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন মা বীণাপাণি শ্রীমদ্ভগবদ্ গীতা বিদ্যাপীঠ এর সাধারণ সম্পাদক ও গীতা শিক্ষক শ্রী অজিত কুমার সূত্রধর মহাশয়। কাশি,ঢাক ও উলুর ধ্বনির মাধ্যমে সবাই মেতে উঠেছিল শ্রীরামনবমী উদযাপন মহা আনন্দময় অনুষ্ঠানে, সেই সাথে সবাই আরো আনন্দে মেতে উঠেছিল প্রথমবার মা বীণাপাণি ওঁ শান্তি পতাকা উত্তোলন করায়। উক্ত মহা আনন্দময় অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিল চারদিকের সকল মানুষ এবং বিভিন্ন ধর্মীয়, সামাজিক সংগঠন ও সরকারি প্রতিনিধি নেতৃবৃন্দ সবাই আমন্ত্রিত ছিলেন এবং তারা সকলেই উপস্থিত থেকে আনন্দ উপভোগ করেন। অনুষ্ঠানে পুজো, মা বীণাপাণি ওঁ শান্তি পতাকা উত্তোলন, আনন্দ কীর্ত্তন ও গীতা পাঠের পর মধ্যাহ্নে সকল পুন্যার্থী দর্শনার্থী ও সেবকবৃন্দদের জন্য মহা প্রসাদের আয়োজন করেছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মা বীণাপাণি অমৃত সংঘ এবং সবাই খুব তৃপ্তি সহকারে মহা প্রসাদ গ্রহণ করেন। মধ্যাহ্নে মহাপ্রসাদ বিতরণের পর মা বীণাপাণি শ্রীমদ্ভগবদ্ গীতা বিদ্যাপীঠ গীতা স্কুলের শিক্ষার্থীরা সবাই মিলে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন এবং নাচ গানের মাধ্যমে সবাইকে নিয়ে শেষ মুহূর্তের আনন্দ উপভোগ করেন।