[gtranslate]

ল্যাগেজ সুবিধা না পাওয়ায় বিজিবির ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার উদ্দেশ্য মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৩, ৮:৫২ পূর্বাহ্ণ / ২৮
ল্যাগেজ সুবিধা না পাওয়ায় বিজিবির ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার উদ্দেশ্য মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ

শার্শা প্রতিনিধিঃ- সাংবাদিক পরিচয়ে ল্যাগেজ সুবিধা না পাওয়ায় বিজিবির ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার উদ্দেশ্য মিথ্যা , বানোয়াট ও ভিক্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করেছে যশোর থেকে অনলাইন ভিক্তিক নিউজ পোর্টাল নোভা নিউজ ২৪ ডট কম। জানা যায় শনিবার o৪ ফেরুয়ারী যশোর থেকে প্রচারিত অনলাইন ভিক্তিক নিউজ পোর্টাল নোভা নিউজ ২৪ ডট কম এর নিজস্ব প্রতিবেদক এর প্রতিবেদনে দেখা যায় ল্যাগেজ প্রতি কাস্টমস ৫, ‘নায়েক নজরুল ২ হাজার করে নিয়ে বৈধতা দিচ্ছে চোরাচালানের শিরোনামে নিউজটি প্রকাশ হয়৷এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি ও স্থানীয় লেবারদের অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে বিজিবি কর্তৃপক্ষ ,পাসপোর্ট যাত্রী ও লেবারদের সাথে কথা বলে জানা যায় বিজিবির বিরুদ্ধে নিউজে আনীত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন ৷বিজিবির সদস্যরা নিরলসভাবে কাজ করলেও একটি কুচক্রী মহল বিজিবিকে জড়িয়ে কুৎসা রটাচ্ছেন। একাধিক পাসপোর্ট যাত্রীরা বলেন, বিজিবি আমাদের কাছ থেকে কোন প্রকার অর্থ নেয়নি বরং তারা আমাদের সাথে অনেক আন্তরিকতা দেখিয়েছে। যে বক্তব্যের ভিডিও ফুটেজ প্রতিবেদকের মোবাইলে সংরক্ষিত রয়েছে।  এ বিষয়ে ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের আইসিপি চেকপোষ্ট ক্যাম্পের নায়েক নজরুল ইসলাম বলেন, সাংবাদিক মিঠু পরিচয়ে এক ব্যাক্তি আমার কাছে এসে বলে আমার কিছু লাগেজ আছে বের করতে হবে , আমি সাংবাদিক মিঠু আমার ল্যাগেজ গুলো এমনি দিয়ে নেব। তখন আমি তাকে বলি, আপনি কাস্টমে ট্যাক্স দিয়ে নিয়ে আসবেন, সঠিক থাকলে আমি ছেড়ে দিব৷ আমাদের কাছ থেকে কোন সমস্যা নেই৷ ট্যাক্স দেখব,কাগজ দেখব, ছবি করবো আপনি চলে যাবেন ৷ তার অবৈধ প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায়, আমাকে অনেক হুমকি দেয় যে, আমি সাংবাদিক আমি এটা করবো, ওটা করবো আপনাকে দেখে নিব৷ তিনি আরও বলেন আমরা এখানে যারা ডিউটি করি বিশেষ করে আমাদের কমান্ডার তিনিও ওই সাংবাদিক মিঠুকে একই কথা বলেন, মিঠু আমাদেরকে অনেক কিছু এনে দিতে বলেন৷ তার এমন কথা কর্ণপাত না করার কারণে বিজিবির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার উদ্দেশ্য সে এমন বিবৃতি দেয়।লেবার হাসানুজ্জামান হাসান বলেন, আমরা এখানে সাধারণ শ্রমিক, আমরা ব্যাগ টেনে এক থেকে দেড়শ টাকা করে পাই , আমরা কোন পাসপোর্ট যাত্রীর কাছ থেকে কোন রকম বাড়তি টাকা পয়সা নিই না , তাছাড়া বিজিবির সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক ও লেনেদেন নেই ৷লেবার হারুন বলেন, কিছু সাধারন যাত্রী আসে তাদের মাল ট্যাক্স করে নিয়ে আসা হয়। ২০ কেজি মালের স্থলে ৪০ কেজি থাকলে যাত্রীরা কাস্টমে বাড়তি ট্যাক্স ও ভ্যাট দিয়ে মাল নিয়ে যায় ৷ সাংবাদিক পরিচয় দানকারী মিঠু আমাকে বলেন, ভারত থেকে মেডিসিন পার করে দিতে হবে তার বিনিময়ে আমাকে ২০ হাজার টাকা দেওয়া হবে৷ তখন আমি বলি মেডিসিন কোন ট্যাক্স আইটেম মাল না , মেডিসিন পার হবে নাi তখন মিঠু বলেন, মেডিসিন যদি পার না হয়, তবে ট্যাক্স আইটেম কিভাবে পার হবে? তখন আমি তাকে বলি, এটা কাপড় আইটেম সরকারি ট্যাক্স ও ভ্যাট দিয়ে বের করে আনে, আর মেডিসিন তো বিজিবি, কাস্টম ও পুলিশ ছাড়বেনা৷ এটাতো সরকারী বেআইনী মাল। আমরা মেডিসিন পার করতে পারবো না এখানে সরকারি গোয়েন্দা সংস্থা আছে । আমরাতো লেবাড়ি করে সারাদিন কষ্ট করে খাই৷ সে বলেছে আমরা নাকি বিজিপিকে টাকা দিই, তিনি যদি প্রমাণ করতে পারে তাহলে আমি লেবারই কাজ ছেড়ে দিব৷ এখানে বিজিবি ও পুলিশ কোন টাকা খায় না।লেবার জোনাব আলী বলেন, এটা পুরো মিথ্যা কথা, আমরা লেবার ভাড়া পায় ৫০ থেকে ১০০ টাকা তাতে আমরা সন্তুষ্ট ৷ বিজিবির সাথে কোন লেনদেন নাই, বিজিবির সাথে আমাদের কোন সম্পর্কই নাই, ব্যাগ প্রতি ৫০ থেকে ১শত টাকা পাই এতেই আমাদের ডাল ভাত হয়ে যায় ৷ভারত ফেরত যাত্রী নড়াইল জেলার দম্পতি বলেন, বিজিবি যথেষ্ট আন্তরিক আমরা কোন হয়রানি শিকার হয়নি। বিজিবি বা লেবার কোন অতিরিক্ত টাকা-পয়সা চায়নি ৷ঢাকার টঙ্গীর পাসপোর্ট যাত্রী প্রমিলা বলেন, বিজিবির চেকপোষ্টে আমাকে হয়রানি করেনি, তারা আমার ল্যাগেজ নিয়ম মাফিক চেক করেছেন বলে তিনি বলেন ৷এ বিষয়ে যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত পরিচালক মেজর সেলিমউদ্দোজা বলেন বিজিবির বিরুদ্ধে অভিযোগ ও নিউজটি ভিক্তিহীন। সুবিধা বঞ্চিত একটি জনগোষ্ঠী বিজিবিকে হেয়- প্রতিপন্ন করার অপপ্রচার চালাচ্ছে । বিজিবি সব সময় সৎ ও সততার মধ্যে থেকে সীমান্তের অতন্ত্র প্রহরী হয়ে দিনরাত দেশ এবং দেশের জনগণের জন্য কাজ করে যাচ্ছে বলে তিনি জানান।