[gtranslate]

মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের বাড়ির সীমানা ভেঙ্গে দেয়ায় সংবাদ সম্মেলন


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : মার্চ ১৮, ২০২৩, ১২:২৯ অপরাহ্ণ / ৪৮
মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের বাড়ির সীমানা ভেঙ্গে দেয়ায় সংবাদ সম্মেলন

ডেস্ক নিউজ :

১৮ মার্চ ২০২৩ ইং শনিবার সিলেট বিভাগীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় উক্ত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দেন মো: মকছুদুর রহমান, পিতা- মরহুম ওয়াতির আলী (বীর মুক্তিযোদ্ধা ও প্রাক্তন বাংলাদেশ রাইফেলস এর একজন অবসরপ্রাপ্ত চাকুরীজীবি), সাকিন: পূর্ব ভাদেশ্বর, ডাক: পূর্ব ভাদেশ্বর, থানা: গোলাপগঞ্জ জেলা: সিলেট। তিনি বলেন, আমার গ্রামের বাসীন্দা রুহুম সৈয়দ মনজ্জির আলীর পুত্র সৈয়দ মদব্বির হোসেন, বয়স ৭০ বৎসর, গত কয়েক বছর পূর্বে কে বিদেশে গমন করিয়াছে। সে দেশে থাকা অবস্থায় স্বভাবত দাঙ্গাবাজ ও মামলাবাজ প্রকৃতির লোক। বিদেশ হইতে প্রতি বছর দেশে আসিয়া আমি সহ এলাকার বিভিন্ন লোকজনের শহিত জোরপূর্বক গায়ের জোরে লাগালাগি করে এবং জায়গা জমি দখল করে। বিগত দুই বৎসর পূর্বে দেশে আসিয়া আমি গং এর পূর্ববাগ ফকির টুল জামে মসজিদ এর জায়গা জমি জোরপূর্বক দখল করিয়া সেই জায়গা জমির উপরিস্থিত গাছপালা বিক্রি করিয়াছে। উল্লেখিত সৈয়দ মদব্বির হোসেন দাঙ্গাবাজ প্রকৃতির লোক হওয়ায় আমার গ্রামের প্রায় লোকজনই তাহাকে ভয় পায়। আমি গং এর পূর্বভাগ জামে মসজিদ এর জায়গা জমি নিয়ে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত নং -০২, সিলেট, সুত্র গোলাপগঞ্জ সি আরমামলা নং-৩৫৫/২০২১ খ্রি: ধারা – ৪২০/৪০৬, ৫০৬(২)/৩৪ পেনাল কোড এ একটি মামলা হয় এবং সেই মামলায় আমি সাক্ষী প্রদান করিয়া ছিলাম বিদায় উল্লেখিত সৈয়দ মদব্বির হোসেন আমি ও আমার ভাই মাহবুবুর রহমান ফানু, এনামুর রহমান এনু ও আমার পরিবারের সকল সদস্যগনকে তাহার পালিত পূর্ব ভাগ নওয়া পাড়া তজলু রাজাকারের পুত্র মিলাদ হোসেন ও তার গোন্ডা বাহিনী দ্বারা প্রানে হত্যা করাইবে বলিয়া হুমকি-ধামকি দিয়াছে। বিগত – ২০০৬ সালে ইং সনে উপরোল্লিখিত তজলু রাজাকারের ছেলে মিলাদ হোসেন ও তাহার গোন্ডাবাহিনী নিয়া আমার ঘরবাড়ি ভাঙার চেষ্টা করিলে আমি বাদে হইয়া উল্লেখিত মিলাদ হোসেনের বিরুদ্ধে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করি। এই কারণে উল্লেখিত মদব্বির হোসেন ও মিলাদ হোসেন একত্রিত হইয়া আমি সহ আমার সব সময় আত্তি সাধন করার অপচেষ্টা লিপ্ত রইয়াছে। ইদানিং আমায় আমাদের গ্রামের রাস্তা পাক্কা করনের কাজ চলিতেছে। এমন অবস্থায় আমার গ্রামের কিছু সংখ্যক মানুষকে ভুল ভাবে বুঝাইয়া (সৈয়দ মাদব্বির হোসেন এর বাড়িতে মিটিং করিয়া) উল্লেখিত সৈয়দ মাদব্বির হোসেন ও মিলাদ হোসেন এর পালিত গুন্ডাবাহিনী নিয়া বিগত-১৭/০৩/২০২৩ ইং তারিখ রোজ শুক্রবার সকাল অনুমানিক ০৯:৩০ ঘটিকার সময় আমার মালিকানাধীন মৌজা ভাদেশ্বর এস, এ জে, এল নং- ৭৫ বি,এস জে, এল নং ৭৪ স্থিত, এস, এ -৪৬০২ নং দাগের বি,এস-৫৬৫০ নং গং দাগের উপর নির্মিত আমার বছরের উত্তর সাইডে পুরো দেয়াল ও পূর্ব সাইটের আংশিক পাকা দেওয়াল, গ্যাস লাইনের রাইজার ও গ্যাসের পুরো লাইন, পানির লাইন, বাথরুমের পাইপের লাইন তাহাদের হাতে থাকা হেমার, শাবল, কুদাল ও দাড়ালো বিভিন্ন অস্ত্রপাত দিয়ে বানচুর করে। বর্তমানে আমার দেশের লাইন ঝুলন্ত অবস্থায় আছে। প্রকাশ করা আবশ্যক যে উল্লেখিত সৈয়দ মাদব্বির হোসেন ও রাজাকারের ছেলে মিলাদ হুসেন এবং তাদের গুন্ডাবাহিনীর ভয়ে আমি ও আমার পরিবারের সকল সদস্য ভয়ে ভয়ে দিনপাত করিতেছে বিদায় বিগত -১৭/০৩/২০২৩ ইং তারিখে মাননীয় অফিসার ইনচার্জ গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করিয়াছি। আমি বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের আইজিপি, এখানে উপস্থিত সিলেটের সকল প্রিন্ট ইলেকট্রিক মিডিয়া সাংবাদিক ভাইরা, আপনাদের কাছে অনুরুধ আপনাদের সহযোগিতা একান্ত কাম্য। আমি মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে সবার সহযোগিতা একান্ত কাম্য বলে মনে করি।