[gtranslate]

ময়মনসিংহে বসতঘরের সামনেই নতুন তিনটি কবর


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : জুলাই ১৭, ২০২২, ১:৫৪ অপরাহ্ণ / ৩১
ময়মনসিংহে বসতঘরের সামনেই নতুন তিনটি কবর

 

শায়লা করিম শর্মী, মুক্তাগাছা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 

ময়মনসিংহ: বসতঘরের সামনেই নতুন তিনটি কবর। কবরগুলোর সামনে মানুষের ভিড়। কবরের পাশে বসে অঝোরে কাঁদছেন নিহতদের স্বজনেরা। আজ রোববার সকালে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার রায়মনি গ্রামে সড়ক ‍দুর্ঘটনায় নিহত তিনজনের বাড়িতে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়।

নিহত তিনজনের জন্য কান্না ছাড়াও মানুষের আলোচনায় ছিল সড়ক দুর্ঘটনার সময় মায়ের পেট চিরে জন্ম নেওয়া মেয়ে নবজাতকটি। সে যেন শোকস্তব্ধ রায়মনি গ্রামে একটুখানি আনন্দের উপলক্ষ।

গতকাল শনিবার বিকেলে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কোর্ট ভবন এলাকায় সড়ক পার হতে গিয়ে মারা যান রায়মনি গ্রামের বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম (৪২), তাঁর স্ত্রী রত্না বেগম (৩২) ও ৬ বছরের কন্যাশিশু সানজিদা। দুর্ঘটনার সময় ট্রাকচাপায় অন্তঃসত্ত্বা মা রত্না বেগমের পেট চিরে জন্ম নেয় একটি নবজাতক।

মামির কোলে থাকা নবজাতকের সারা শরীর কাপড় দিয়ে ঢাকা। শুধু ছোট্ট মুখখানি দেখা যায়। চোখ বন্ধ করে ঘুমাচ্ছে। তবে তার এই ঘুম অন্য নবজাতকের মতো নয়। কিছুক্ষণ আগেই এক ভয়ানক ‘ঝড়ের’ মধ্যে এ পৃথিবীর আলো দেখেছে সে।