[gtranslate]

বরগুনার কুয়েত প্রবাসী হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি সিলগালা: জেলা প্রশাসন


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৩, ৫:২৩ অপরাহ্ণ / ২৩
বরগুনার কুয়েত প্রবাসী হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি সিলগালা: জেলা প্রশাসন

মনজুরুল ইসলাম, তালতলী প্রতিনিধি

অবশেষে বরগুনার কুয়েত প্রবাসী হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি সিলগালা করে দিয়েছে বরগুনা জেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করেন জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহফুজুর রহমান। ্এর আগে, তানজিলা আকতার পুতুল নামে এক প্রসূতি সিজারের জন্য এই ক্লিনিকে ভর্তি হন। পরে মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে এক ছেলে সন্তানের জন্ম দেন তিনি। তবে অপারেশন চলাকালীন সময়ে চিৎকার করে জ্ঞান হারান পুতুল। স্বজনরা প্রসূতির চিৎকার শুনে এগিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকসহ ক্লিনিকের স্টাফরা সটকে পরে। রোগীর অবস্থা আশংকাজনক দেখে স্বজনরা বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার দ্রুত অক্সিজেন ভেল্টিলেশনের মাধ্যমে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। পরে শেবাচিম এ আইসিউতে থাকাকালীন অবস্থায় ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে তিনি মারা যান। পুতুল মারা যাবার বিষয়টি জানতে পেরে বুধবার (২২ ফেব্রুয়ারী) ভোর সকালে ভর্তিকৃ আরো প্রসূতী ও রোগীদের দ্রুত বের করে দিয়ে ক্লিনিকে তালা লাগিয়ে লাপাত্তা হন ক্লিনিকের মালিক ও সংশ্লিষ্টরা। এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহফুজুর রহমান বলেন, অভিযোগের খবর পেয়ে প্রতিষ্ঠানটির লাইসেন্স আছে কি না দেখার জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। তবে ওই প্রতিষ্ঠানের কোনো কর্তৃপক্ষকে পাওয়া যায়নি। ক্লিনিকটি তালা লাগানো ছিল। তাই প্রতিষ্ঠানটিকে সিলগালা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার মেহেদী হাসান উপস্থিত ছিলেন।