[gtranslate]

ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ফরিদপুরে চালকের ডোপটেস্টসহ স্বাস্থ্য পরীক্ষা


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : মে ১৩, ২০২৪, ১২:৪৬ অপরাহ্ণ /
ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ফরিদপুরে চালকের ডোপটেস্টসহ স্বাস্থ্য পরীক্ষা

বিপ্লব কুমার দাস। নিজস্ব প্রতিবেদক:- সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ফরিদপুরে চালকের ডোপটেস্টসহ স্বাস্থ্য পরীক্ষা

মহাসড়ক নিরাপদ রাখতে ফরিদপুরে যানবাহনের ফিটনেস টেস্টের পাশাপাশি চালকদের ডোপটেস্ট ও স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অভিযান শুরু হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুজিবুল ইসলামের নেতৃত্বে বিআরটিএ, সিভিল সার্জনের ডাক্তারি টিম ও পুলিশ সদস্যরা অভিযানে অংশ নেন।

রোববার (১২ মে) দুপুর থেকে শুরু হয় ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের মুন্সিবাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের এই অভিযান। যা সোমবারও অব্যাহত আছে।

এ সময় বিভিন্ন গাড়ির কাগজপত্র, চালকদের ডোপটেস্ট ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

‘বেপরোয়া নয়, গতিসীমার মধ্যে গাড়ি চালান, সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করুন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে মহাসড়কে দুর্ঘটনা এড়াতে গাড়ির পাশাপাশি চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। তাই তাদের রক্তচাপ ও ডায়াবেটিক পরীক্ষা করে সচেতন করা হয়। এছাড়া নেশা করে মহাসড়কে গাড়ি চালানোর কারণে দুর্ঘটনা রোধ করতে গাড়ির চালকদের ডোপটেস্ট করা হয়। এ সময় দুই ট্রাক চালকের ডোপটেস্ট রেজাল্ট পজিটিভ পাওয়া যায়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুজিবুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি ফরিদপুরের বিভিন্ন মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় জেলা প্রশাসকের নির্দেশে গাড়ির ফিটনেস চেকের পাশাপাশি চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়। নেশাগ্রস্ত ও অসুস্থ চালকদের দ্বারা গাড়ি চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনা হতে পারে এমন আশঙ্কা থেকে এই অভিযান চালানো হচ্ছে।

এ সময় বিভিন্ন দূরপাল্লার বাস, ট্রাক থামিয়ে গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষা করা ও চালকদের প্রেশার, ডায়াবেটিক টেস্টসহ ডোপটেস্ট করা হয়। অভিযান চলাকালে বিভিন্ন অনিয়মে ৫টি গাড়ির বিরুদ্ধে সড়ক পরিবহন আইনে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হয়। এছাড়া ডোপটেস্ট পজিটিভি থাকা ২ চালককে আটক করে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। এসময় তাদের ট্রাক দুটি জব্দ করা হয়।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে বিআরটিএর পরিদর্শক এনামুল হক ইমন, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. আল আমিনসহ পুলিশ, এপিবিএনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) কামরুল আহসান তালুকদার বলেন, আমরা ফরিদপুরের মহাসড়কগুলোতে মৃত্যুর মিছিল থামাতে চাই। যেহেতু এই অঞ্চল দুর্ঘটনা প্রবণ সেকারণেই আমারা ধারাবাহিকভাবে এই অভিযান অব্যাহত রাখবো।