[gtranslate]

পুকুর থেকে অটোরিকশা সহ চালকের মরদেহ উদ্ধার।


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৮, ২০২৩, ৫:২৩ অপরাহ্ণ / ৬০৫
পুকুর থেকে অটোরিকশা সহ চালকের মরদেহ উদ্ধার।

মাটি মামুন রংপুর। রংপুর নগরীর ৪নং ওয়ার্ডের খটখটিয়া পচ্চিম পাড়া এলাকায় পুকুর থেকে সিরাজুল ইসলাম নামের এক রিকশাচালকের মরহেদ ও অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়েছে।গতকাল বুধবার সকালে গরীর ৪ নং ওয়ার্ডের খটখটিয়া এলাকা থেকে এই মরদেহ ও অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়।পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে রংপুর মহানগরীর ৬ নং ওয়ার্ডের বুড়িরহাট এলাকার বাহাদুর সিংহ পশ্চিম পাড়ার মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে সিরাজুল ইসলাম ৩৫ পেশায় একজন আটোরিকশা চালক।প্রতিদিনের ন্যায় রিকশা নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন তিনি ।বুধবার সকালে খটখটিয়া পশ্চিমপাড়া এলাকায় আলম মিয়ার পুকুরে অটোরিকশা ভাসতে দেখে এলাকা বাসি ভিড় জমায় সেই সময় মাটি মামুন ঘটনা স্থানে এসে পুলিশ কে পুলিশে খবর দেন কিছুক্ষণ পড়ে পরশুরাম থানা পুলিশ এসে রিকশা টি পুকুর থেকে তুলে ফায়ারসার্ভিস কে খবর দেন রংপুর ফায়ারসার্ভিস এর একটি দল এসে সিরাজুল ইসলাম রিকশাচালকের মরহেদ উদ্ধার করে। পরে পরশুরাম থানা পুলিশ ও ফায়ারসার্ভিস এর সদস্য রা রংপুর মেট্রো কোতোয়ালি থানার পুলিশ এর কাছে লাশটি হস্তান্তর করেন। রংপুর মেট্রো কোতোয়ালি থানা পুলিশম য়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।দুপুরে য়না তদন্ত শেষে তার মৃত্যু দেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন।মৃত সিরাজুল ইসলাম মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে রিকশা থেকে পড়ে গিয়ে পুকুরে ডুবে তার মৃত্যু হয়েছে।তার মরদেহ পাশে রিকশাটি পাওয়া যায়। পকেটের টাকাও কেউ নেয়নি।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেট্রোপলিটন কোতয়ালি থানার ওসি মাহফুজার রহমান জানিয়েছেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে তার মৃত্যু দেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মৃত সিরাজুল মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। অসাবধানতাবশত পুকুরে পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে।