[gtranslate]

পিরোজপুরে ক্যাটারিং সার্ভিসের গাড়িকে চাপা দিল বাস ; নিহত কমপক্ষে -০৫


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : মার্চ ১৯, ২০২৩, ৬:১২ পূর্বাহ্ণ / ২১
পিরোজপুরে ক্যাটারিং সার্ভিসের গাড়িকে চাপা দিল বাস ; নিহত কমপক্ষে -০৫

মোঃ আঃ রহিম জয় , সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার

পিরোজপুর-পাড়েরহাট সড়কের শংকরপাশা এলাকায় এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ জন নিহত ও অন্তত আট জন গুরুতর আহত হয়েছেন।  আহতদের মধ্যে সাতজনকে খুলনায় এবং একজনকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হতাহতদের সবাই বাগেরহাট ও কচুয়া উপজেলার বাসিন্দা। নিহতরা হলেন- বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রা এলাকার আল-আমিন মল্লিকের পুত্র শাহিন মল্লিক (১৮), একই উপজেলার চোমরা এলাকার আবুল হোসেন মিনার পুত্র ইয়াসিন মিনা (২২), কচুয়া উপজেলার সাইনবোর্ড এলাকার মো. বাদশা (১৭), শাহিন মোল্লা (২০) এবং অজ্ঞাত একজন। সদর থানার ওসি মো. মাসুদুজ্জামান জানান, বাস ও টমটম দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই দুজন, পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে একজন এবং খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর দুজনের মৃত্যু হয়েছে। ঘাতক বাসটি আটক করা হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বাগেরহাট থেকে একটি টমটমে বিয়েবাড়ির খাবার সরবরাহকারী দল ভাণ্ডারিয়ার উদ্দেশে যাচ্ছিল। এ সময় তাদের গাড়ির পেছনের চাকা ভেঙে রাস্তায় পড়ে গেলে একটি গ্রামীণ পরিবহণের গাড়ি টমটমকে চাপা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।  পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ক্যাটারিং স্টাফ ও বাগেরহাটের খানজাহান আলী কলেজের ছাত্র সিরাজুল ইসলাম শিমুল জানান, তারা বাগেরহাটের শান্ত ক্যাটারিংয়ে খণ্ডকালীন কাজ করেন। তারা সবাই বাগেরহাট ও কচুয়া উপজেলার বিভিন্ন কলেজের ছাত্র। একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে অর্ডার পেয়ে বিকালের দিকে তারা বাগেরহাট থেকে ভাণ্ডারিয়ার উদ্দেশে রওনা দেন। জেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মো. রফিকুল ইসলাম জানান, আহতদের মধ্যে হাসপাতালে মোট চারজন চিকিৎসা নিতে আসেন। এদের মধ্যে একজন মারা যান। আহত একজনকে জেলা হাসপাতাল এবং বাকি দুজনকে খুলনায় পাঠানো হয়েছে।  খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসতাপালে নেওয়ার পর শাহিন মোল্লা ও অজ্ঞাত একজন মারা যান বলে পুলিশ জানিয়েছে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাসুদুজ্জামান জানান, ঘাতক পরিবহণকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হযেছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।