[gtranslate]

দুই ছাত্রীকে ৬ ঘণ্টা আটকে নির্যাতনের অভিযোগ রিভার বিরুদ্ধে


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : আগস্ট ২৩, ২০২২, ৭:৩৫ অপরাহ্ণ / ২৫
দুই ছাত্রীকে ৬ ঘণ্টা আটকে নির্যাতনের অভিযোগ রিভার বিরুদ্ধে

 

নিউজ ডেস্ক:

এবার দুই ছাত্রীকে ৬ ঘণ্টা আটকে নির্যাতনের অভিযোগ রিভার বিরুদ্ধে ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা

রাজধানীর ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভার বিরুদ্ধে এবার দুই ছাত্রীকে সাড়ে ছয় ঘণ্টা দাঁড়িয়ে রেখে মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ওই ‍দুই ছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও করে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকির অভিযোগও উঠেছে রিভার বিরুদ্ধে। যদিও রিভা এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, তিনি উল্লিখিত সময়ে হলে ছিলেন না।

গত শুক্রবার (১৯ আগস্ট) রিভা ছাত্রলীগের কর্মসূচিতে না যাওয়ায় শিক্ষার্থীদের আবাসিক হলের কক্ষ থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেন। অকথ্য ভাষায় গালাগাল ও হুমকি দেওয়ার একটি অডিও ফাঁস হলে তা নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রচার হয়। যদিও পরে এ নিয়ে ক্ষমা চান তিনি।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, সেই অডিও ফাঁস হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে রিভা মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে রাজিয়া হলের ২০২ নাম্বার কক্ষ থেকে বঙ্গমাতা হলের ১১০৭ নাম্বার রুমে নিয়ে যান দুই ছাত্রীকে। বিকেল ৫.৩০টা পর্যন্ত সেখানে দুজনকে আটকে রাখা হয়। খবর পেয়ে ইডেন কলেজের অধ্যক্ষ ও রাজিয়া হলের প্রাধ্যক্ষ গিয়ে দুজনকে করে হল অফিসে নিয়ে আসেন।

ইডেন কলেজের একটি সূত্র জানায়, রিভার রুম থেকেই মেয়েদের উদ্ধার করে নিয়ে যান অধ্যক্ষ ও প্রাধ্যক্ষ। সেখানে নিয়েও তাদের শাসানো হয়। রিভা সেখানে গিয়ে তাদের রাতের মধ্যে হল থেকে বের করে দেওয়ার জন্য অধ্যক্ষকে বলেন।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের আটকে রাখার বর্ণনার কিছু ভিডিও ক্লিপ মিডিয়ার হাতে এসেছে। সেখানে একজনকে বলতে শোনা যায়, ‘আজকে সকাল ১১টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত আমাকে রিভা আপুর রুমে রাখছে। রাইখা আমারে এটা বলছে, মানে অনেক হুমকি দিছে, অনেক গালাগালি করছে, যাতে এটা (অডিও ফাঁস) কে করাইছে আমি বলি। কিন্তু আমি তো বলি নাই। কিন্তু (ছাত্রলীগ নেত্রী সুমনা মিম) মিম আপু কোনোদিন আমাদের বলেও নাই রেকর্ডের কথা। মিম আপু আমারে কোনো দিন বলে নাই যে এগুলো রেকর্ড করে আনবা। কিন্তু আমি বাধ্য হয়েই ওইদিন রেকর্ড করেছিলাম। কারণ প্রতিদিন প্রোগ্রামে যাওয়ার জন্য উনি অনেক ইয়ে করতো। অসুস্থ থাকলেও প্রোগ্রামে যাওয়ার জন্য অনেক ধরনের কথা বলত। ওইদিন আমি গেছি, তারপর রেকর্ড কইরা আনছি যাতে আবার যদি নেক্সটে কিছু হয় তাহলে আমি এগুলা বলতে পারি, ম্যামদের জানাইতে পারি। তারপর আজকে আমাকে বলছে যে, তুই কীভাবে ইডেন কলেজ থেকে পাস করে বের হস আমি দেখমু। যদি স্বীকার করোস যে সুমনা মিম তোদের দিয়া এগুলা করাইছে তাহলে তোদের ছেড়ে দেবো। তারপর আমি স্বীকার করতে চাই নাই, কারণ আমি মিম আপু আমারে বা আমাদের কাউকেই কোনো দিন বলে নাই যে রেকর্ড করবি। তারপরে আমাকে হুমকি দিছে আর একটা কাগজে লিখে দিছিলো, সেটা আমি পড়েছি রেকর্ড করছে ওনারা। আমি ওই লেখাটা পড়ার পরেই ওনারা রেকর্ড করছে। আর ওটা রেকর্ড করে পরে বলছে যে, তোদের উলঙ্গ করে ভিডিও করে ভাইরাল করে দেবো। তাই আমি ভয়ে মিম আপুর বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা বলতে বাধ্য হয়েছি। মিম আপু এগুলা করায় নাই বা আমাদের কোনোদিন বলেও নাই।’

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে তখন তা নিশ্চিত করেন রাজিয়া বেগম হলের প্রাধ্যক্ষ নার্গিস রুমা। তিনি বলেন, আমরা এসেছি। ঘটনার তদন্ত করবো।

পরে তাকে একাধিকবার কল দিলেও আর সাড়া পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে ইডেন কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সুপ্রিয়া সাহাকে ফোন দিলেও তার কোনো সাড়া মেলেনি।

অভিযোগের বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর তামান্না জেসমিন রিভা জাগো নিউজে ফোন দিয়ে উল্লিখিত সময়ে ঘটনাস্থলেই তার না থাকার দাবি করেন। তিনি বলেন, একটা মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে নিউজ করাতে চাইছে। আমি কাকে নাকি নির্যাতন করেছি এমন বর্ণনা নিয়ে তারা এটা করাতে চাইছে। আমি সকাল থেকে ক্যাম্পাসের নিচে আমাদের প্রোগ্রাম নিয়ে সবাইর সঙ্গে ছিলাম। সন্ধ্যার পরে পার্টি অফিসে গেছি।

অভিযোগকারী শিক্ষার্থীর বর্ণনার ভিডিও ক্লিপ হাতে আসার পর তামান্না জেসমিন রিভাকে একাধিকবার কল ও খুদে বার্তা পাঠালেও তার সাড়া মেলেনি।

সূত্র: জাগো নিউঊ