[gtranslate]

তাহিরপুরে বাদাঘাট ইউনিয়নের সরলা হিজলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১, ২০২২, ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ / ৪৯২
তাহিরপুরে বাদাঘাট ইউনিয়নের সরলা হিজলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী

 

নিজস্ব প্রতিবেদন:

সরলা হিজলা বলেন আমি বাদাঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে চাই, এবং আমি এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব, জনগণ আমার বাবা, জনগণ আমার মা, জনগণ আমার ভাই, জনগণ আমার বোন, এবং জনগণ আমার সন্তান, এই নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে আছি এবং জনগণের পাশে আমি সব সময় থাকবো সেই সাথে তাহিরপুর উপজেলার সাতটি ইউনিয়নে আমরা হিজড়া গোষ্ঠীর মেম্বার পদপ্রার্থী করতে চাই এবং করব, আমার বিশ্বাস আমি সহ আমার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী যারা আছে নির্বাচনে বিপুল বুটে আমরা জয়লাভ করবো ইনশাআল্লাহ।

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা সাতটি ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২, এই নির্বাচন উপলক্ষে হিজড়া জনগোষ্ঠীর হিজড়া জয় মাতা সরলা হিজলা সহ সাতটি ইউনিয়নে ৮ পদপ্রার্থী হতে আগ্রহী,

এক প্রশ্নের জবাবে সরলা হিজলা বলেন, আমি স্বতন্ত্র পদপ্রার্থী হতে চাই, সরকারের বা কোন দলের পদপ্রার্থী হতে চায় না যদিও আমাকে দল থেকে কার্ড দেয় আমি নিতে আগ্রহী নয়, আমি জনগণের মতে জনগণের প্রতিনিধির স্বতন্ত্র পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবো ইনশাআল্লাহ,

আপনারা সবাই জানেন তার পরেও জানিয়ে রাখছি, কালীগঞ্জ উপজেলার একটি ইউনিয়নে হিজড়া নজরুল হিজরা, ৯ হাজার ৫ ৫৭টি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে।

এক প্রশ্নের জবাবে সরলা হিজলা বলেন আমি করুণা কালীন সময়ে সাতটন চাল ইউনিয়নের মধ্যে বিতরণ করেছি, সেই সাথে ৫০০ থেকে ৭০০ প্যাকেট চিড়া-মুড়ি বিতরণ করেছে, এবং নগদ ৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জনগণের মধ্যে বিতরণ করে দিয়েছে। এবং এমপি পীর বদরুল রহমান মিসবাহ, সাহেবের কাছ থেকে একটা বরাদ্দ পেয়েছিলাম সেই বরাদ্দ আমি ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করেছি, আমরা হিজড়া জনগোষ্ঠী করুণা কালীন সময়ে সরকারি যে বরাদ্দ পেয়েছে সবগুলাই ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করেছি, গত ঈদে আমরা সরকারের পক্ষ থেকে এক টন চাল পেয়েছিলাম সেগুলোও আমি ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করে দেই, সরকারি অনুদান আমি সবগুলাই জনসাধারণের মাঝে বিতরণ করি। আমি যদি ইউনিয়নের মানুষের জন্য কিছু করি অবশ্যই আমাকে ভোট দেবে আমার বিশ্বাস ইউনিয়নের মানুষ আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবে করুণা কালীন সময় চালাও আমি সবসময় ইউনিয়নের মানুষের পাশে আছি পাশে থাকব এবং তাদের সবরকম সহযোগিতা করে যাব।

আমরা হিজড়া গোষ্ঠী অসহায় মানুষ, আমাদের মা আছে, বাবা আছে, ভাই আছে, বোন আছে এবং অসংখ্য আত্মীয় স্বজন আছে,  কিন্তু কেউ নেই। জনগণ আমার মা, জনগণ আমার বাপ, জনগণ আমার ভাই, জনগণ আমার বোন। আমি বিশ্বাস করি জনগণ আমাকে ভোট দেবে এবং বাদাঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করবে।

সুনামগঞ্জ জেলা হিজড়া জনগোষ্ঠীর ৩৭৫ জন সদস্য সকলের মতামত নিয়ে আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতেছি, সমগ্র জেলার হিজড়া জনগোষ্ঠী আমাকে সমর্থন করেছে এবং ইউনিয়নের মানুষ আমাকে সমর্থন করেছে তাদেরকে নিয়ে আমি মিটিং করেছি সমর্থন নিয়েছি সবাই আমার পাশে থাকবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, হালিমা, শেলী, মিতালী, জাকিয়া, নদী, প্রিয়াঙ্কা, জামিলা, মুক্তা, হেপী, প্রেমা, পাখি, লক্ষী, উর্মিলা, কোহিনুর, সহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

 

এক প্রশ্নের জবাবে সরলা হিজড়া বলেন এতদিন আমরা কোন পরিচয় দিতে পারিনি সেজন্য কোন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে একটা পরিচয় দিয়েছেন আমাদের আইডি কাড করেছেন সেজন্য আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পেরেছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য ধন্যবাদ, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমরা অংশগ্রহণ করেছি এটি মধ্যে আমাদের একজন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে এছাড়াও আমরা তাহিরপুর উপজেলা বাদাঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী আমি সরলা হিজলা এবং আমার সাথে আছেন আরো ৭ জন মেম্বার পদপ্রার্থী। আমরা অবশ্যই উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব জেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব এটা আমাদের আশা।

 

আরেক প্রশ্নের জবাবে সরলা হিজলা বলেন আমরা মানুষের কাছ থেকে ১০ টাকা ৫ টাকা সংগ্রহ করি আমরা নিজেরাও চলি এবং আমাদের আশেপাশে হতদরিদ্র মানুষ গুলোকে সাহায্য করে থাকি, আমাদের আশেপাশে অসহায় অনেক মা-বাবা আছেন যারা মেয়ের বিয়ে দিতে পারেন না আমরা সার্বিক সহযোগিতা করি। নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা আমার কারণ হচ্ছে মানুষকে আরও কাছ থেকে সাহায্য করতে পারি এবং সহযোগিতা করতে পারি মানুষের ভালোবাসা পেতে পারি সেই জন্য। আমাদের টাকা-পয়সা দরকার নাই সরকারি অনুদান যা আসবে সবগুলা মানুষের মাঝে বিতরণ করব।