[gtranslate]

ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে লুটের অভিযোগ, ৩ জনকে কুপিয়ে জখম


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : মার্চ ২০, ২০২২, ১২:০৭ অপরাহ্ণ / ১৩২
ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে লুটের অভিযোগ, ৩ জনকে কুপিয়ে জখম

 

ইসহাক (জুয়েল), নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বরগুনা মাইক্রোবাসের গতিরোধ করে তিন লক্ষাধিক টাকা ও স্বর্নালঙ্কার লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় তিনজনকে কুপিয়ে জখম করা হয়, যাদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর। এঘটনায় অভিযুক্ত স্থানীয় এক ছাত্রলীগ নেতা।

শনিবার (১৯ মার্চ) রাতে বরগুনা সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের ছোট গৌরীচন্না রুপনগর এলাকায় এঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, একই এলাকার আলী হোসেনের ছেলে সাইফুল ইসলাম কনু (৪৫) ও সাইদুল ইসলাম সোহেল (৩৫) এবং তাদের চাচাত ভাই জাহাঙ্গীর হোসেন (৪৫)।

আহতদের পরিবার সূত্রে জানা যায়, সোহেল ঢাকায় চাকরি করে। কয়েকদিন আগে স্বপরিবারে তিনি বরগুনায় আসেন৷ ২ দিন আগে তিনি তার স্ত্রী, সন্তান ও আত্মীয়দের নিয়ে পর্যটনকেন্দ্র কুয়াকাটায় বেড়াতে যান। সেখান থেকে গতকাল রাত ৮ টার দিকে নিজ বাড়িতে যাওয়ার সময় তাদের গাড়ীতে লুটপাট চালায় একই এলাকার রুস্তম ঘরামী ও তার ছেলে ফুলঝুড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান দুরন্ত, চাচা সেলিম ও তাদের সহযোগিরা। এতে সোহেল ও তার ভাই কনু, জাহাঙ্গীরকে কুপিয়ে জখম করে এবং সাথে থাকা ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা ও স্বর্নালঙ্কার লুট করে।

পরে স্থানীয়রা আহতদের গুরতর অবস্থায় উদ্ধার করে বরগুনা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত সাইফুল ইসলাম সোহেল ও সাইফুল ইসলাম কনুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় কর্তব্যরত চিকিৎসক।

স্থানীয় নাঈম ইসলাম বলেন, রাতে ডাক চিৎকার শুনে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি তিনজন জখম হয়ে পরে আছে। পরে আমি স্থানীয়দের নিয়ে তাদের হাসপাতালে পাঠাই। এঘটনায় অভিযুক্ত মেহেদী এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে থাকে। এর আগেও তার বিরুদ্ধে এমন কাজ করার অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী আহম্মদ বলেন, তথ্য পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।