[gtranslate]

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ গৃহবধূ হেলেনা মারা গেছেন।


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : জুন ১২, ২০২৪, ২:৩১ অপরাহ্ণ /
গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ গৃহবধূ হেলেনা মারা গেছেন।

বিপ্লব কুমার দাস। নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ গৃহবধূ হেলেনা মারা গেছেন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে স্বামীর দেওয়া আগুন দগ্ধ গৃহবধূ হেলেনা আক্তার (৩৬) মারা গেছেন। সোমবার (১০ জুন) সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তার মৃত্যু হয়। এর আগে, গত বৃহস্পতিবার (৬ জুন) উপজেলার গোহালা ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে দগ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় হেলেনার দগ্ধ ছেলে অন্তর (১১) আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢামেকের বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছে।হেলেনার ভাই ইমরান জানান, প্রায় ১৪ বছর আগে উপজেলার মোচনা ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের ওসমান শেখের সঙ্গে হেলেনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে সে বিভিন্ন সময় হেলেনাকে মারধর করে আসছে। ওসমান নেশাগ্রস্ত হওয়ায় হেলেনা আমাদের বাড়িতে থাকত।তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাতে হেলেনা ছেলেকে নিয়ে ঘরে ঘুমিয়ে ছিল। রাত ১টার দিকে হেলেনার স্বামী জানালা দিয়ে তাদের ওপর পেট্রোল ছুড়ে মারে। এরপর আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় তাদের চিৎকারে সবাই এগিয়ে আসে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে রাজৈর হাসপাতালে এবং সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার বোন মারা গেছে। মুকসুদপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আশরাফুল আলম বলেন, স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ হেলেনা আক্তার ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। যথাযথ আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত ওসমান পলাতক আছেন।