[gtranslate]

আমার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন এর সাপ্তাহিক কর্মসূচি সম্পন্ন


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ২১, ২০২২, ১০:২৫ পূর্বাহ্ণ / ৯০
আমার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন এর সাপ্তাহিক কর্মসূচি সম্পন্ন

 

নিজস্ব প্রতিবেদন:

আমার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত আজকের আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন আমাদের সুপরিচিত তরুণ সমাজসেবক মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন তিনি টিমের সকল সদস্যবৃন্দ, আলোচনা সভা পরিচালনা করেন টিম ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ আবদুল মান্নান, আজকের বিষয় নিয়ে উপস্থাপনা করেন মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ,

সুষম সার ব্যবহারে ফসল বাড়ে অধিক হারে। এই বিষয়ের উপর আলোচনা রাখেন মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ

১. সারা বছর একই জমিতে অধিক ফলনশীল শস্যের চাষাবাদের কারণে মাটির উর্বরতা ধীরে ধীরে কমে যাচ্ছে । তাই মাটির উর্বরতা শক্তি সংরক্ষণ করে অধিক ফসল ফলানোর জন্য জমিতে সুষম সার ব্যবহার করা প্রয়োজন।

২. মাটি এবং ফসলের চাহিদামতো ইউরিয়া সারের পাশাপাশি নন – ইউরিয়া সার যেমন ডিএপি , এমওপি এবং প্রয়োজনমতো জৈব সার / সবুজ সার ব্যবহার করা প্রয়োজন।

৩. ডিএপি ও এমওপি সার ব্যবহার করলে ফসলের দানা পুষ্ট হয় , ফসলের রোগবালাই প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় , খরা ও শীত সহনশীলতা বাড়ে , ফসলের গুণগতমান ও সংরক্ষণ ক্ষমতা বাড়ে এবং ফলন বেশি পাওয়া যায়।

৪. ডিএপি একটি বিশেষ গুণগতমান সম্পন্ন সার । ডিএপি সারে অ্যামোনিয়া ও ফসফেট থাকায় একই সাথে ইউরিয়া ও টিএসপি এ দুটি সারের গুণাগুণ বিদ্যমান।

৫. ডিএপি ব্যবহার করলে টিএসপি ব্যবহার করার প্রয়োজন হয় না এবং ইউরিয়া কম ব্যবহার করলেই চলে।

৬. প্রতি বস্তা ( ৫০ কেজি ) ডিএপি সারে ২০ কেজি ইউরিয়া ও ৫০ কেজি টিএসপি সারের সমপরিমাণ পুষ্টি উপাদান বিদ্যমান । ফলে টিএসপি সারের পরিবর্তে ডিএপি সার ব্যবহার করলে বর্তমান বাজার মূল্য অনুসারে প্রতি বস্তায় সাশ্রয় হয় ১৭০ টাকা।

৭. ডিএপি সার খুব তাড়াতাড়ি পানিতে গলে । ফলে সব ফসল আবাদেই তা খুবই উপযোগী।

৮. বিভিন্ন ফসল উৎপাদনে জৈবসার / সবুজসার ও ডিএপিসহ অন্যান্য রাসায়নিক সার সুষম মাত্রায় প্রয়োগ করে অধিক ফসল উৎপাদন করুন এবং আর্থিকভাবে লাভবান হোন ।

আলোচনা শেষে লিফলেট বিতরণ করা হয়, ৩ নং ওয়ার্ডের পাড়া-মহল্লায় সব লিফলেট বিতরণ করা হয়।

আয়োজনে: আমার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন, ৪ নং বড়দল উত্তর ইউ/পি ইউনিট, ৩ নং ওয়ার্ড, উপজেলা: তাহিরপুর, জেলা: সুনামগঞ্জ।