[gtranslate]

আমতলীতে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১১, ২০২৩, ৪:৪৯ অপরাহ্ণ / ২৩
আমতলীতে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই

আমতলীতে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই

জাহিদুল ইসলাম জনি,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ বরগুনার আমতলী পৌর শহরের ছুরিকাটা গ্রামের ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক মোঃ বেল্লাল গাজী (৩৫) নামে এক যুবকের মরদেহ বুধবার সকালে কলাপাড়া উপজেলার রজপাড়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করেছে কলাপাড়া থানা পুলিশ। বেল্লাল আমতলী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের সফেজ গাজীর ছেলে।

পুলিশ এবং নিহত বেল্লালের স্বজন সূত্রে জানা গেছে, বেল্লাল গাজী (৩৫) ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত। মঙ্গলবার রাতে সে আমতলী পৌর শহরের চৌরাস্তা থেকে যাত্রী নিয়ে কলাপাড়া যাওয়ার পর ওই রাতে সে আরা বাসায় ফিরে আসেনি। রাতে এবং সকালে তার ব্যবহৃত মোবাইলে কল করেও বন্ধ পাওয়া যায়।

বুধবার সকাল ১১ টার সময় কলাপাড়া থানা পুলিশ স্থানীয়দের নিকট থেকে জানতে পেরে টিয়াখালী ইউনিয়নের রজপাড়া গ্রামের বাশার সিকদারের বাড়ীর কাছের মৌমিতা খালের পার থেকে ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক বেল্লালের মুখমন্ডল থেতলানো রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করে। তবে এখনো তার প্লাটিনা মোটর সাইকেল এবং ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

নিহত বেল্লালের বড় ভাই দুলাল গাজী জানান,আমার ভাই বেল্লালকে শত্রুতার করে কেহ হত্যা করে মোটর সাইকেলটি ছিনতাই করে নিয়ে গেছে। তার মুখমন্ডল থেতলানো, চোখে এবং হাতে আঘাতের চিহ্ন এবং গলায় রশি পেচানো ছিল। আমি এ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠ বিচার চাই।

নিহত বেল্লালের স্ত্রী মারিয়া বেগম কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, মুই এ্যাহন দুইডা পোলাপান লইয়া ক্যামনে থাকমু।

নিহত বেল্লালের মা কহিনুর বেগম কান্না বিজড়িত কন্ঠে জানান,আমারে কে এহন মা বলে ডাকবে।

কলাপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন,লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি জানান, লাশের মুখমন্ডল এবং চোঁখে আঘাতের চিহ্ন আছে। ধারনা করা হচ্ছে শত্রুতা বশতঃ কেউ তাকে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখেছে।