[gtranslate]

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সুনামগঞ্জ ১ আসনে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা কে হবে নৌকার মাঝি রতন না সেলিম


প্রাচেস্টা নিউজ প্রকাশের সময় : মার্চ ১৯, ২০২৩, ৫:৪৩ অপরাহ্ণ / ২৭
আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সুনামগঞ্জ ১ আসনে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা কে হবে নৌকার মাঝি রতন না সেলিম

আমির হোসেন, বার্তা সম্পাদক::

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০২৪ সালে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে । আর এই দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সুনামগঞ্জ ১ আসনে শুরু হয়েছে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা। কে হবেন নৌকার মাঝি এই নিয়ে শুরু হয়েছে জেলা জুড়ে নানান গুঞ্জন ও আলোচনা। গত ১৫বছর যাবত সুনামগঞ্জ ১ আসনে বরাবরের মতই একটানা তিনতিন বারের মত কোন শক্তিশালী প্রার্থী না থাকায় নৌকার মনোনয়ন ভাগিয়ে নিয়েছেন বিতর্কিত নানান অভিযোগে অভিযুক্ত সুনামগঞ্জ ১ আসনের বর্তমান এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোজ্জেম হোসেন রতন। কিন্তু এবারের নির্বাচনে ক্ষমতাশীন আওয়ামীলীগের সভাপতি বঙ্গবন্ধুর কন্যা বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাকে নৌকার মনোনয়ন দেবেন সেই ভাবনায় নেতাদের মধ্যে শুরু হয়েছে দৌড়যাপ। প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পারি দিচ্ছেন অনেকে। ইতি মধ্যেই মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের সাথে নির্বাচনে পাল্লা দিয়ে অংশ গ্রহণ করার মতো প্রার্থী হিসেবে একমাত্র যোগ্য হিসেবে আলোচনায় শীর্ষে উঠে এসেছেন তরুণ রাজনীতিবিদ সাবেক ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বর্তমান সুনামগঞ্জ জেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি বিশিষ্ট্য সমাজ সেবক দানবীর মো: সেলিম আহমদের নাম। সারা জেলাজুড়েই নেতাদের এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে চলছে এমনটির আলোচনা সমালোচনা ঝড়। সুনামগঞ্জ ১ আসনে কে হবেন নৌকার মাঝি রতন না সেলিম? সেটি নিয়ে জল্পনা কল্পনা রয়েছে তৃণমূল নেতাসহ সাধারণ মানুষের মনে। দল কাকে দিবেন নৌকার মনোনয়ণ ? নানান দূর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত বর্তমান বিতর্কিত এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনকে? নাকি নতুন প্রজন্মের ক্লিন ইমেজের রাজনীতিবিদ সুনামগঞ্জ জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সেলিমকে? নাকি অন্য কাউকে ? সরেজমিনে ঘুরে সুনামগঞ্জ ১ আসনের জামালগঞ্জ, ধর্মপাশা, মধ্যনগর, তাহিরপুরের প্রতিটি থানা এরিয়াসহ বিভিন্ন গ্রামেগঞ্জে রাস্তা ঘাটের পাশে হাটবাজারে দেখাযায় আগামী সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রত্যাশী সেলিম আহমদের অনুসারিরা শেখ হাসিনার নিকট সেলিম আহমদকে নৌকার মনোনয়ন দেওয়ার দাবীতে বিশাল বিশাল ব্যানার ফেসটুন লাগিয়ে এবং নেতাদের ফেইসবুকে , ফেস্টুন, ব্যানার, লিফলেটের মাধ্যমে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পাড়ি দিচ্ছেন । যার কারনে প্রচারণার শীর্ষে সেলিম আহমদের নাম চলে এসেছে সকলের আগে। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগে সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে ও বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় দেখা যায় সেলিম আহমদের আলোচনা বেশি উঠে আসছে প্রতিনিয়তই। ইতিমধ্যে জেলাজুড়ে তরুণ এই রাজনীতিবিদ সেলিম আহমদ প্রতিটি শ্রেণী পেশার মানুষের মধ্যে তার কর্মকান্ডের মাধ্যমে জয়করে নিয়েছেন সকলের মন। লক্ষ্যকরে দেখা গিয়েছে করুনা কালীন মহামারির সময় থেকে শুরু করে বন্যা কবলিত অসহায় মানুষের মাঝে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়াসহ বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসা, মন্দির, কবরস্থানের উন্নয়নসহ স্কুল কলেজ পড়–য়া অসহায় শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার জন্য এবং অসুস্থ রোগীদের চিকিৎসার জন্য নিজের ব্যক্তিগত অর্থায়নে যে পরিমান সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে অসহায় মানুষের পাশে রয়েছেন তা অন্য কোন এমপি কিংবা দলীয় নেতাদের মধ্যে এমনটি দেখা যায়নি। যার কারনে সেলিমকে শুধু সুনামগঞ্জ ১ আসনের নৌকার প্রার্থীই নয়, জেলা আওয়ামীলীগের কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদে দেখতে চায় সাধারণ মানুষসহ তৃণমুল ত্যাগী নেতারা। আগামী সংসদ নির্বচনে সেলিম আহমদ অংশ গ্রহন করবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি রাজনীতিতে এসেছি ছাত্রলীগ থেকে শুরুকরে। বর্তমানে আমি শ্রমিকলীগের সভাপতি হিসেবে সুনামগঞ্জ জেলায় দায়িত্বে রয়েছি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পুরণে তারই সুযোগ্য উত্তরসূরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এদেশকে বিশ্বের বুকে একটি অসাম্প্রদায়িক উন্নত বাংলাদেশ হিসেবে রুপকারের জন্য দিন রাত প্ররিশ্রম করে উন্নয়নের জন্য এদেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। আমি তারই অংশ হিসেবে আমার জেলায় শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসেবে অসহায় মানুষের পাশে থেকে আমার সাধ্যমত ব্যক্তিগত অর্থায়নে জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরণে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরও বলেন যেহেতু আমি রাজনীতি করি দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে গিয়ে আমি আমার নির্বচনী এলাকায় নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করব না। দল যদি আমাকে সুনামগঞ্জ ১ আসনে নৌকার মনোনয়ন দেন তাহলে আমি নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত রয়েছি। এছাড়াও তিনি আর বলেন দল যদি আমাকে মনোনয়ন নাওদেন যাকে নৌকার মনোনয়ন দিবেন আমি তার হয়ে কাজ করব। সুনামগঞ্জ ১ আসনে এবার নতুন মুখ নৌকার মনোনয়ন পাবেন এমনটিই প্রত্যাশা ঐ এলাকার তৃণমূল মানুষের।